15th Aug 2019: আসন্ন অষ্টম মেম্বারশীপ ভেরিফিকেশন ,

১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ অষ্টম মেম্বারশীপ ভেরিফিকেশন এ বিএসএনএল এমপ্লয়িজ ইউনিয়ন কে পুনরায় বিপুল ভোটে জয়যুক্ত করুন 

 

20th Mar 2019: বিএসএনএলইইউ এর ১৯তম প্রতিষ্ঠা দিবস পালন করুন,

আগামী ২২ মার্চ ২০১৯  বিএসএনএলইইউ এর ১৯তম প্রতিষ্ঠা দিবস বিএসএনএল এর প্রতিটি অফিস দফতরে ব্যাপক ঊদ্দীপনার সাথে পালন করুন। 

 

Com Sisir Kumar Roy
( President )

Com. Shankar Keshar Nepal
( Secretary )

Com. Jayanta Ghosh
( Treasurer )

 
 
bsnleuctc@yahoo.co.in
 
BSNL Employees Union Calcutta Telephones Circle
 
Site Updated On : 23rd May 2024
 
[16th Apr 2024]

উন্নত মোবাইল পরিষেবা চালু করার দাবিতে বিএসএনএল এ দেশব্যাপী বিক্ষোভ কর্মসূচী পালন 

 

টিসিএস আশানুরূপ 4G সরঞ্জাম সরবরাহ করতে অক্ষম - সরকার নীরব। তাই আজ ১৬ এপ্রিল দেশব্যাপী শক্তিশালী বিক্ষোভ সংগঠিত করা হল।

টিসিএস দ্বারা বহুল প্রতীক্ষিত 4G সরঞ্জাম সরবরাহ করা হচ্ছে না। খবর এসেছে যে, টিসিএস তার 4G ইকুইপমেন্টে সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছে, যা বিএসএনএলকে সরবরাহ করা হবে এবং এই সমস্যাগুলি সমাধানের জন্য টিসিএস, নোকিয়া এবং জেডটিই- এর সাহায্য চেয়েছে। ইতিমধ্যে, প্রতি মাসে লক্ষ লক্ষ গ্রাহক বিএসএনএল ছেড়ে চলে যাচ্ছে। একটি অস্থায়ী ব্যবস্থা হিসাবে, বিএসএনএল এম্প্লয়িজ ইউনিয়ন দাবি করেছে যে বিএসএনএল কে তার গ্রাহকদের 4G পরিষেবা দেওয়ার জন্য ভোডাফোন আইডিয়ার নেটওয়ার্ক ব্যবহার করার অনুমতি দেওয়া উচিত। 

কিন্তু, বিএসএনএল- এর সঙ্কটজনক অবস্থা নিয়ে সরকার চিন্তিত নয়। 

এই পরিস্থিতিতে, বিএসএনএল এম্প্লয়িজ ইউনিয়ন- এর সর্বভারতীয় কেন্দ্র আজ 16-04-2024 তারিখে লাঞ্চ আওয়ার বিক্ষোভ সংগঠিত করে কর্মচারীদের আহ্বান জানিয়েছে, এই বিষয়ে সরকারের অবিলম্বে হস্তক্ষেপের দাবি জানিয়েছে। সমস্ত সার্কেল এবং জেলা ইউনিয়নগুলি এই কর্মসূচী পালন করে।

কলকাতা টেলিফোনস্ এ বিবাদি বাগে সিজিএম অফিসে এই বিক্ষোভ দেখান হয়। বক্তব্য রাখেন সার্কেল সম্পাদক কমরেড শংকর কেশর নেপাল এবং সর্বভারতীয় সহসাধারণ সম্পাদক শিশির কুমার রায়।

 

-শিশির কুমার রায়, সহ-সাধারণ সম্পাদক,

বিএসএনএল এম্প্লয়িজ ইউনিয়ন।

 
[13th Apr 2024]

দক্ষিণ শাখার তৃতীয় সম্মেলন

 

১৩ই এপ্রিল, ২০২৪, শনিবার, বিএসএনএল এম্প্লয়িজ ইউনিয়ন, দক্ষিণ শাখার তৃতীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়, বালিগঞ্জ প্লেস টেলিফোন অফিসের লাইনম্যান বিশ্রাম কক্ষে। প্রথমে রক্তপতাকা উত্তোলন করেন সভাপতি তপন গাঙ্গুলী। শহীদ বেদীতে মাল্যদান ও পুষ্প প্রদান করার পর শোকপ্রস্তাব পেশ ও নীরবতা পালনের মধ্য দিয়ে শহীদ ও মৃতদের প্রতি শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করা হয়। এরপর কমঃ তপন গাংগুলী এবং কমঃ বিশ্বজিৎ ফৌজদারকে নিয়ে সভাপতি মন্ডলী গঠন করা হয়।সভাপতি মন্ডলীর অনুমোদন নিয়ে সম্পাদকীয় প্রতিবেদন পেশ করেন শাখা সম্পাদক কমরেড সমীর বরন জানা।পরিক্ষিত আয়-ব্যয়ের হিসাব পেশ করেন কমঃ বিমান ব্যানার্জী। সম্মেলনের উদ্বোধন করেন সার্কেল সম্পাদক কমরেড শঙ্কর কেশর নেপাল। বক্তব্য রাখেন সার্কেল সহ সম্পাদক কমরেড সুকান্তি মুখার্জি। সম্মেলনকে শুভেচ্ছা জানিয়ে বক্তব্য রাখেন যাদবপুর শাখার সম্পাদক কম: দীপঙ্কর মজুমদার, আলিপুর শাখার সম্পাদক কমরেড পলাশ চৌধুরী। বক্তব্য রাখেন এআইবিডিপিএ ‘ র পক্ষে কমরেড সমর সরকার, ঠিকা মজদুরের পক্ষে কমরেড তাপস ব্যানার্জী । সার্কেল সভাপতি কমরেড শিশির কুমার রায় লোকসভা নির্বাচনে আমাদের করণীয় কাজ সম্পর্কে আলোচনা করেন। উপস্থিত ছিলেন সেন্ট্রাল শাখার সম্পাদক কমরেড সুজিত গাঙ্গুলী, কমরেড শম্ভু, কমরেড সুকান্ত প্রমুখ।এআইবিডিপিএ ‘র পক্ষে কমরেড চঞ্চল সরকার, কমরেড শীতল দফাদার উপস্থিত ছিলেন। এই বছর অবসর প্রাপ্ত দুই কমরেড দেবাশীষ চক্রবর্তী ও তরুণ গাঙ্গুলীকে ইউনিয়নের পক্ষ থেকে সম্বর্ধনা প্রদান করা হয়। কমরেড মধুসূদন মুখার্জিকে সম্বোধিত করা হয়। সম্মেলনে নির্বাচিত কমিটি নিচে দেওয়া হলো।                     

১) সভাপতি কমঃ বিশ্বজিৎ ফৌজদার

২) সহ সভাপতি কমঃ সুভাষ জয়সোয়ারা                

৩) সম্পাদক কমঃ সমীর বরন জানা ৪) সহ সম্পাদক কমঃ বিমান ব্যানার্জী

৫) কোষাধ্যক্ষ কমঃ রাধানাথ প্রামানিক  

৬) সহকোষাধ্যক্ষ কমঃ অজিত জানা সাংগঠনিক সম্পাদক

৭) কমঃ দিলীপ ভট্টাচার্য             

৮) কমঃ রাজকুমার সাউ             

৯) কমঃ সুরেন্দ্রনাথ পুরকায়েত  

 সম্পাদক কমঃ সমীর বরন জানা বাজেট পেশ করেন।সভাপতি পাশ করেন।কমঃ চন্চল সরকারকে অডিটার নিয়োগ করা হয়। ধন্যবাদ ও অভিনন্দন জানিয়ে সম্মেলন সমাপ্তি ঘোষণা করেন সভাপতিমণ্ডলীর পক্ষে বিশ্বজিৎ ফৌজদার ও তপন গাঙ্গুলী।

-সমীর বরন জানা, শাখা সম্পাদক ।

 
[12th Apr 2024]

কো-অর্ডিনেশন কমিটি, কলকাতা টেলিফোনস্ সার্কেলের সভা

 

প্রিয় সার্কেল সম্পাদকগণ, 

আজ ১২ এপ্রিল,২০২৪, শুক্রবার, বিএসএনএল এম্প্লয়িজ ইউনিয়ন এর টেলিফোন ভবন অফিসে কো-অর্ডিনেশন কমিটি, কলকাতা টেলিফোনস্ সার্কেলের একটি সভা অনুষ্ঠিত হয়। এই সভার কাজ পরিচালনা করেন কমরেড সুনীল দত্ত। 

কমরেড শিশির রায়, কনভেনার, সভার সামনে আলোচনার বিষয়গুলি উত্থাপন করেন।

এরপর সভায় উপস্থিত সদস্যগণ উত্থাপিত বিষয়গুলি নিয়ে আলোচনা করেন এবং তাদের মতামত দেন l 

আলোচনার পর নিম্নলিখিত সিদ্ধান্তগুলি গ্রহণ করা হয়।

 

১) “সলিল চৌধুরী জন্মশতবর্ষ “ উপলক্ষে সাংস্কৃতিক কর্মসূচী পালন করা হবে। এই কর্মসূচী কো-অর্ডিনেশন কমিটি, কলকাতা টেলিফোনস্ সার্কেলের ৫ টি জেলায় জেলা কমিটির উদ্যোগে ১৫ মে,২০২৪ এর মধ্যে পালন করবে।

২) আগামী ১৯ এপ্রিল,২০২৪ ক্যালকাটা টেলিফোনস্ ঠিকা মজদুর ইউনিয়ণ টেলিফোন ভবন অডিটোরিয়াম হলে “ঠিকা মজদুরের বর্তমান অবস্থা ও করণীয় কাজ” সম্পর্কে এক কনভেনশন আয়োজন করবে।

৩) প্রয়াত কমরেড অসিত রায়ের স্মরণসভা অনুস্ঠিত হবে ২৩ এপ্রিল,২০২৪।

৪) “কেউ খাবে, কেউ খাবে না, তা হবে না, তা হবে না” এই লক্ষকে সামনে রেখে “শ্রমজীবী ক্যানটিন যাদবপুর” ১৪৬৩ দিন অতিক্রম করল। তারা বিএসএনএল কো-অর্ডিনেশন কমিটির কাছে আর্থিক সহায়তার আবেদন করে।তাদের আবেদনে সাড়া দিয়ে কো-অর্ডিনেশন কমিটি সাধ্যমত আর্থিক সহায়তার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সার্কেল সম্পাদকদের এই কর্মসূচী সফলভাবে রূপায়ন করতে অনুরোধ করা হচ্ছে।

 সকল সদস্যকে ধন্যবাদ ও অভিনন্দন জানিয়ে সভাপতি সভা শেষ করেন।

অভিনন্দনসহ,

-শিশির কুমার রায়, কনভেনার,

বিএসএনএল কো-অর্ডিনেশন কমিটি,

কলকাতা টেলিফোনস্ সার্কেল।

 
[10th Apr 2024]

সেন্ট্রাল এরিয়া শাখার তৃতীয় শাখা সম্মেল

 

১০ই এপ্রিল,২০২৪, বুধবার, বিএসএনএল এম্প্লয়িজ ইউনিয়ন, সেন্ট্রাল এরিয়া শাখা, তার তৃতীয় শাখা সম্মেলন অনুস্ঠিত করল বড়বাজার ক্লাব ঘরে।ইউনিয়নের রক্ত পতাকা উত্তোলন করেন শাখা সভাপতি সুকান্তি মুখার্জী। শহীদ বেদিতে মাল্যদান, শোক প্রস্তাব পেশ এবং নিরবতা পালনের মধ্য দিয়ে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করা হয়। সভাপতি কমরেড সুকান্তি মুখার্জি সম্মেলন পরিচালনা করেন।প্রথমেই শাখা সম্পাদক কম:সুজিত কুমার গাঙ্গুলী খসড়া প্রতিবেদন এবং কোষাধ্যক্ষ কম:সুশান্ত মন্ডল পরীক্ষিত আয়-ব্যায়ের হিসাব ও অডিট রিপোর্ট পেশ করেন গঠনমূলক সমালোচনা/আলোচনা করার জন্য। ৩ জন সদস্য শিবজি মাহাতো, সুশান্ত মণ্ডল, নাওয়াল কিশোর রায় রিপোর্টের ওপর তাদের মতামত ব্যক্ত করেন।এই সম্মেলন কে সাফল্য কামনা করে উদ্বধনী বক্তব্য রাখেন সার্কেল সম্পাদক কমরেড শঙ্কর কেশর নেপাল,। এছাড়া কম:সুলগ্না বাসু কম:অঘোর সিকদার, কম:মনীষা বিশ্বাস শুভেচ্ছা জানিয়ে বক্তব্য রাখেন।কমরেড শিশির রায় সার্কেল সভাপতি বিস্তারিত বক্তব্য রাখেন।

আমন্ত্রিত সার্কেল নেতৃত্ব কম:

বিশ্বজিৎ শীল ,কম:বিনয়সিং,কম:জয়ন্ত ঘোষ,কম:জয়ন্ত মুখার্জি, কম:স্বপন দাস,কম :সুব্রত পাল,কম :প্রদীপ সরকার, কম :প্রসেনজিৎ রায় এবং এ আই বি ডি পি এর সিনিয়ার নেতৃত্বে কম:পরেশ মোহন দাস কম:কাজল বিস্বাস, কম : সমীর বিশ্বাস,কম:কেয়া কর্মকার,কম : তাপস চ্যাটার্জী, কম:কনক চক্রবর্তী, কম:সুরেশ মোহন দাস,কম: অতনুমজুমদার,কম:সত্য রঞ্জন মাইতি, কম : দেবাশিস দে সহ অনেকে এই সন্মেলনে উপস্থিত ছিলেন।সার্কেল সম্পাদক বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে গঠনমূলক চর্চা করেন ,কেন কর্মীদের বেতন সংশোধন হচ্ছেনা, কেন অনিয়মিত কর্মীদের ছাঁটাই হচ্ছে এবং ন্যূনতম বেতন থেকে তারা বন্চিত হচ্ছে। সার্কেল সভাপতি বলেন কেন পেনশন রিভিশন আটকে আছে তা বক্তব্যে তুলে ধরেন।বর্তমান কেন্দ্রীয় সরকারের নীতি এর একমাত্র কারন। এই সরকার প্রায় ৮০ হাজার কর্মচারীদের ভিআরএস দিয়ে ছাঁটাই।ল্যান্ডলাইন বন্ধ করে দিচ্ছে, সব ধরনের কাজ ভেন্ডারকে দিয়ে দেওয়া হচ্ছে। সরকার মোবাইল পরিষেবার উন্নতি ৪জি না দিয়ে, নানা অযুহাতে বিলম্বিত করছে। এর ফলে প্রতি মাসে বিএসএনএল মোবাইল গ্রাহক হারাচ্ছে। তিনি ইলেক্টরাল বন্ড নিয়েও বিস্তারিত বক্তব্য রাখেন।তিনি শ্রমিক কর্মচারীদের নিকট ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের আহ্বান জানিয়ে ,বলেন যে আসন্ন সাধারন নির্বাচনে এমন এক সরকার তৈরী করতে হবে যে সরকার বিএসএনএল সহ রাস্ট্রায়ত্ত সংস্থা রক্ষা করবে এবং তার উন্নতি করবে। কর্মচারীদের অর্থনৈতিক উন্নতি ঘটাবে।

এরপর শাখা সম্পাদক জবাবি ভাষন দেন ও অভিনন্দন জানান।।সভাপতি ২০২৪ সালের নয় জনের কমিটি নির্বাচিত করেন। তাদের নাম নিচে দেওয়া হল।

১) সভাপতি:- কম: শ্যামল পাল

২) সহ-সভাপতি:-কম:পঙ্কজ দাস

৩) " কম:সুশান্ত মন্ডল

৪)সম্পাদক:-সুজিত কুমার গাঙ্গুলী

৫)সহ:সম্পাদক:- শেখর শীল

৬) " স্বপন মিশ্র 

৭) কোষাধ্যক্ষ:- রবিন সাহা

৮)সাংগঠনিক সম্পাদক:- মহ; নাসিম 

৯) " শিবাজী মাহাতো

সকল নির্বাচিত সদস্যকে পরিচিতি র পর সেন্ট্রাল শাখার তৃতীয় সম্মেলন সমাপ্ত হয়।

সকলকে ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা জানিয়ে সভাপতি কম:সুকান্তি মুখার্জী সভা সমাপ্ত ঘোষনা করেন।

             সুজিত কুমার গাঙ্গুলী

       সেন্ট্রাল এরিয়া সম্পাদক,  বি এস এন এল ই ইউ, সি টি ডি

 
[6th Apr 2024]

শোক সংবাদ

 

টেলিকম কর্মচারী আন্দোলনের প্রবিন নেতা কমরেড অসিত রায় গতকাল, ৫ এপ্রিল, ২০২৪, শুক্রবার, বিকাল ২-৩০ মিনিটে প্রয়াত হয়েছেন। দীর্ঘদিন তিনি অসুস্থ ছিলেন। আমরা শোক স্তব্ধ। কমরেড ভূপেন দাস, অমৃত মিত্র, ডি আর সেনগুপ্ত, দেবাশিস দত্তগুপ্ত এবং অসিত রায় ১৯৭০ এর সময় থেকে দক্ষিন শাখায় (অবিভক্ত E-III দক্ষিণ শাখা) প্রয়াত বিজয় গোস্বামীর নেতৃত্বে ইঊনিয়ন সংগঠনে এক সংগে কাজ করেছেন। পরবর্তী সময় শাখা বিভাজিত হওয়ার পর, তিনি সেন্ট্রাল শাখায় সংগঠনের কাজে চাকুরীর শেষ দিন পর্যন্ত সক্রিয়ভাবে যুক্ত ছিলেন। তিনি শ্রমিকশ্রেনীর মতাদর্শে বিশ্বাস করতেন। আজীবন সেই লক্ষে তিনি কাজ করে গেছেন। 

তার মৃত্যুতে কো-অর্ডিনেশন কমিটি গভীর শোক জ্ঞাপন করছে।তার একমাত্র কন্যা এবং তার পরিবারের অন্য সদস্যদের সমবেদনা জানাচ্ছে।

কমরেড অসিত রায় লাল সেলাম।কমরেড অসিত রায় অমর রহে। 

শিশির কুমার রায়, কনভেনার,

বিএসএনএল কো-অর্ডিনেশন কমিটি,

কোলকাতা টেলিফোনস্ সার্কেল।

 
[27th Mar 2024]

সিটি শাখার তৃতীয় সম্মেলন

 

আজ ২৭ শে মার্চ ২০২৪ বিএসএনএল এম্প্লয়িজ ইউনিয়ন, সিটি শাখার তৃতীয় সম্মেলন টেরিটি বাজারে নবমতলে ক্লাব ঘরে অনুষ্ঠিত হয়। এই শাখা সম্মেলনের রক্তপতাকা উত্তোলন করেন শাখা সভাপতি কমঃ শিশির রায়। শহীদ বেদিতে মাল্যদান করেন যথাক্রমে কমঃ শিশির রায়, স্বপন দাস, কমরেড শংকর কেশর নেপাল, মনিষা বিশ্বাস, সুজিত গাঙ্গুলী, বিশ্বজিত শীল, সুকান্তি মুখার্জি , বিনয় কুমার সিং, সুলগ্না বাসু, রনিতা সেনগুপ্ত, সমীর বিশ্বাস, তাপস চ্যাটার্জি এবং আরও অনেকে। মাল্যদান করার পর শোকপ্রস্তাব পাঠ করেন শাখার সভাপতি এবং নিরবতা পালন করে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান হয়। সভার শুরুতে সভাপতির নাম প্রস্তাব করেন শাখা সম্পাদক কমরেড স্বপন দাস। জিতেন্দ্র কুমার সিং এই প্রস্তাব সমর্থন করেন। খসরা রিপোর্ট পেশ করেন শাখা সম্পাদক কমরেড স্বপন দাস এবং পরিক্ষিত আয় ব্যায়ের হিসাব পেশ করেন কম বিশ্বনাথ দেব। এরপর এই সম্মেলন উদ্বোধন করেন সার্কেল সম্পাদক কমরেড শংকর কেশর নেপাল।তিনি প্রচার আন্দোলনের বিষয়ে বলেন।কেন্দ্রীয় সরকারের নীতির সমালোচনা করে বিএসএনএল কর্তৃপক্ষের নেতিবাচক ভূমিকা ৩য় বেতন সংশোধন না দেওয়া, ৪জি না দিয়ে বিএসএনএল কে রুগ্ন করার বিষয়ে বক্তব্য রাখেন। কমরেড মনিষা বিশ্বাস ,কমরেড সুকান্তি মুখার্জি, বিনয় কুমার সিং, কমরেড বিশ্বজিৎ শীল এবং সুলগ্না বসু সহ অন্যান্য শাখা সম্পাদকরা এই সম্মেলনকে অভিনন্দন জানিয়ে বক্তব্য রাখেন। খসরা রিপোর্ট ও পরীক্ষিত আয় ব্যায়ের হিসাব এর উপর ৬ জন সদস্য বক্তব্য রাখেন।সর্বসম্মতিক্রমে খসরা রিপোর্ট এবং পরিক্ষিত আয় ব্যায়ের হিসাব পাস করা হয়। পরবর্তী এক বছরের জন্য নিম্নলিখিত কর্মকর্তাগণ নির্বাচিত হয়েছে।

 

সভাপতি: কম: জিতেন্দ্র কুমার সিং।

সহসভাপতি: কম: রাখি ঘোষ।

সম্পাদক: কম: স্বপন কুমার দাশ।

সহসম্পাদক; কম: সত্যব্রত পুতুটুনড।

সহসম্পাদক: কম: ভোকিল কুমার রায়।

কোষাধ্যক্ষ: কম: বিশ্বনাথ দেব।

সহকোষাধ্যক্ষ: কম: আব্দুল নেহাল আনসারী।

সাংগঠনিক সম্পাদক: কম: মৌসুমী নন্দী।

সাংগঠনিক সম্পাদক: কম: প্রদীপ চৌধুরী।

 

নয় জনের কমিটি নির্বাচিত হয়, অডিটর কম: সুব্রত ঘোষের নাম প্রস্তাব করা হয়।এই প্রস্তাব অনুমোদিত হয়।

সিটি ব্রাঞ্চের উপদেষ্টা মন্ডলীতে কম: শিশির কুমার রায় ও কম: সুকান্তি মুখার্জির নাম প্রস্তাব করেন নবনির্বাচিত শাখা সম্পাদক কমরেড স্বপন কুমার দাশ।সম্মেলন থেকে কমরেড শিশির কুমার রায় এবং কমরেড সুকান্তি মুখার্জিকে সম্বর্ধনা দেওয়া হয়।

 

অতিথি ও সদস্যদের ধন্যবাদ অভিনন্দন জানিয়ে স্লোগানের মধ্য দিয়ে এই তৃতীয় শাখা সম্মেলনের কাজ সমাপ্ত ঘোষণা করেন সভাপতি কমরেড শিশির কুমার রায়।

-স্বপন কুমার দাশ, সম্পাদক, সিটি শাখা

 
[23rd Mar 2024]

22.03.2024 মজুরি সংশোধন কমিটির বৈঠকের আলোকপাত

 

সভার শুরুতে কর্তৃপক্ষ দৃঢ়ভাবে বলেছে, মজুরি পুনর্বিবেচনা কমিটির সভায় আলোচনার বিবরণ ইউনিয়নের ওয়েবসাইটে আপলোড করা উচিত নয়। এতে জটিলতা সৃষ্টি হবে বলে জানান তারা।

বিএসএনএল ইইউ ক্রমাগত দাবি করছে যে, ইতিমধ্যে সম্মত বেতন স্কেলগুলি কার্যকর করা উচিত। গতকালের বৈঠকে, কর্তৃপক্ষ সম্মত হয়েছে যে, NE2 থেকে NE5 পর্যন্ত বেতন স্কেল সামান্য পরিবর্তন করা যেতে পারে।

বিএসএনএল এম্প্লয়িজ ইউনিয়ন দাবি করেছে যে, এইচআরএ সংশোধন বাধ্যতামূলকভাবে দেওয়া উচিত। কর্তৃপক্ষ বলেছে যে, শুধুমাত্র পরিবহন ভাতা সংশোধন করা যেতে পারে।

বিএসএনএল এম্প্লয়িজ ইউনিয়ন দৃঢ়ভাবে দাবি করেছে যে, স্থবিরতায় (স্ট্যাগনেশন) ভুগছেন এমন কর্মচারীদেরকে বকেয়া সহ তাদের ইনক্রিমেন্ট ফেরত দিতে হবে। কিন্তু ম্যানেজমেন্ট সাইড দৃঢ়ভাবে এই দাবি প্রত্যাখ্যান করছে।

মজুরি সংশোধন বাস্তবায়নের তারিখের বিষয়ে, কর্তৃপক্ষ বলেছে যে এটি 01-01-2017 থেকে হবে না। তারা বলেন, এটি শুধুমাত্র চুক্তি স্বাক্ষরের তারিখ থেকে হতে পারে/ বোর্ড অনুমোদন/ ২৪ সরকারি অনুমোদন। এটা শুধুমাত্র ম্যানেজমেন্ট দ্বারা সিদ্ধান্ত হবে।

এখনও অবধি, ম্যানেজমেন্ট সাইড দাবি করেছে যে, তাদের দেওয়া সংক্ষিপ্ত বেতন স্কেল অনুযায়ী, কোম্পানির পেনশন অবদান 900 কোটি টাকা বৃদ্ধি পাবে। 

বিএসএনএল এম্প্লয়িজ ইউনিয়ন চিঠি দিয়েছে, তাতে পেনশন কন্ট্রিবিউশন ডেটা লিখিতভাবে দেওয়ার দাবি জানিয়েছে। গতকালের বৈঠকে ম্যানেজমেন্ট সাইড এ তথ্য দিয়েছে। তদনুসারে, নন- এক্সিকিউটিভদের জন্য বর্তমান পেনশন অবদান 66 কোটি টাকা। মজুরি সংশোধনের পর তা বেড়ে দাঁড়াবে মাত্র 175 কোটি টাকা। এটি শুধুমাত্র দেখায় যে, এখনও পর্যন্ত ম্যানেজমেন্ট পক্ষ পেনশন অবদান সংক্রান্ত মিথ্যা তথ্য দিচ্ছে।

অবশেষে, বিএসএনএল এম্প্লয়িজ ইউনিয়ন দৃঢ়ভাবে ম্যানেজমেন্ট সাইডের কাছে দাবি করেছে যে অন্তত এইচ আর এ- এর সংশোধন বিবেচনা করার জন্য। ম্যানেজমেন্ট সাইড বলেছে যে স্থবিরতা(স্ট্যাগনেশন) / বেতন ক্ষতির ক্ষেত্রে আরও আলোচনার জন্য ইউনিয়নগুলি ডেটা দিতে পারে। এ নিয়ে বৈঠকটি শেষ হয়।

-পি অভিমন্যু.জি.এস

 
You are Visitor Number Hit Counter
Hit Counter
[CHQ] [AP] [Kerala] [Karnataka] [Tamil Nadu] [Calcutta] [West Bengal] [Punjab] [Maharashtra] [Orissa] [MP] [Gujrat] [SNEA] [AIBSNLEA] [TEPU]
[Intranet / BSNL] [DOT] [DPE] [TRAI] [PIB] [CITU ] / AIBDPA