15th Aug 2019: আসন্ন অষ্টম মেম্বারশীপ ভেরিফিকেশন ,

১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ অষ্টম মেম্বারশীপ ভেরিফিকেশন এ বিএসএনএল এমপ্লয়িজ ইউনিয়ন কে পুনরায় বিপুল ভোটে জয়যুক্ত করুন 

 

20th Mar 2019: বিএসএনএলইইউ এর ১৯তম প্রতিষ্ঠা দিবস পালন করুন,

আগামী ২২ মার্চ ২০১৯  বিএসএনএলইইউ এর ১৯তম প্রতিষ্ঠা দিবস বিএসএনএল এর প্রতিটি অফিস দফতরে ব্যাপক ঊদ্দীপনার সাথে পালন করুন। 

 

Com Prabir Kumar Dutta
( President )

Com. Sisir Kumar Roy
( Secretary )

Com. Debasis Dey
( Treasurer )

 
 
bsnleuctc@yahoo.co.in
 
BSNL Employees Union Calcutta Telephones Circle
 
Site Updated On : 15th Nov 2019
 
[24th Jul 2019]

সিএমডি, বিএসএনএল এর সঙ্গে সিএইচকিউ নেতৃত্ব এর মিটিং 

 

কম পি অভিমন্যু, সাধারণ সম্পাদক, কম স্বপন চক্রবর্তী, ডেপুটি জিএস ও কম গোকুল বোরা, কোষাধক্ষ,  শ্রী পি কে পারওয়ার, সিএমডি, বিএসএনএল এর সঙ্গে দেখা করেন এবং নিম্নলিখিত বিষয়গুলি আলোচনা করেন,

১) জব কন্ট্রাক্ট লেবারদের বেতন প্রদান - প্রতিনিধিরা জব কন্ট্রাক্ট লেবাররা বিগত পাঁচ মাস ধরে বেতন না পাওয়ার ফলে যে নিদারুণ কষ্টের মধ্যে রয়েছে তা তুলে ধরেন। ইতিমধ্যে ৫ জন জব কন্ট্রাক্ট লেবার আত্মহত্যা করেছেন, তাদের পরিবার এবং অন্যান্য জব কন্ট্রাক্ট লেবারদের সংসার প্রায় অভুক্ত অবস্থায় দিন অতিবাহিত করছে। এই অবস্থায় তারা অবিলম্বে বকেয়া বেতন প্রদান করতে প্রয়োজনীয় ফান্ড এর ব্যবস্থা করতে অনুরোধ জানান। সিএমডি, বিএসএনএল বর্তমানে সংস্থাটি যে আর্থিক সমস্যার মধ্যে দিয়ে চলছে তা ব্যাখ্যা করেন। যদিও তিনি ইউনিয়নের এই দাবি বিবেচনা করবেন বলে আশ্বাস দিয়েছেন।

২) ট্রেড ইউনিয়ন অধিকার ছাঁটাই ও মাদ্রাস হাইকোর্টে এর অন্তর্বর্তী কালীন স্থগিতাদেশ - প্রতিনিধিরা সিএমডি, বিএসএনএল কে ২ জুলাই, ২০১৯ কর্পোরেট অফিস এর এসআর শাখা থেকে যে স্বেচ্ছাচারী আদেশ জারি করা হয়েছিল যেখানে অষ্টম মেম্বারশীপ ভেরিফিকেশন শেষ না হওয়া পর্যন্ত সমস্ত রকম ট্রেড ইউনিয়ন কার্যকলাপ বন্ধ করতে অন্যথায় মেম্বারশীপ ভেরিফিকেশন এ অংশ গ্রহণ করতে দেওয়া হবে না তা অবহিত করেন। এই অবস্থায় মাননীয় মাদ্রাস হাইকোর্ট এর ঐ আদেশের উপর অন্তর্বর্তী কালীন স্থগিতাদেশ জারি করার কথা সিএমডি কে জানানো হয় ও এই বিষয়ে অবিলম্বে তার হস্তক্ষেপ দাবি করা হয়। 

 
[24th Jul 2019]

বেতন এর দাবিতে বিক্ষোভ 

 

আজ ২৪ জুলাই, ২০১৯ বিএসএনএল কো-অর্ডিনেশন কমিটি, কেন্দ্রীয় সরকারী কর্মচারীদের সংগঠন সমূহের কো-অর্ডিনেশন কমিটি, কেন্দ্রীয় সরকারী পেনশনারস সংগঠন ও ১২ জুলাই কমিটির যৌথ উদ্যোগে বিএসএনএল এর জব কন্ট্রাক্ট লেবারদের বেতন প্রদান এবং কাজের দিন ২৬ থেকে ২০ দিন করার বিরুদ্ধে টেলিফোন ভবনে  বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এই সভার কাজ কম শিশির রায়, সার্কেল সভাপতি, বিএসএনএল কো-অর্ডিনেশন কমিটি, কম সৌগত চক্রবর্তী, সভাপতি, সিজিসিসি ও কম স্বপন রায়, সহকারী সভাপতি, সিজিপিএ কে নিয়ে গঠিত সভাপতিমন্ডলী পরিচালনা করেন। কম ওমপ্রকাশ সিং, সাধারণ সম্পাদক, বিএসএনএল কো-অর্ডিনেশন কমিটি, কম জনার্দন মজুমদার, সাধারণ সম্পাদ, সিজিসিসি, কম মোহন রাম, সহকারী সাধারণ সম্পাদক, সিজিপিএ, কম অরূপ সরকার, সার্কেল সম্পাদক, সিটিটিএমইউ, কম অমিতাভ চট্টোপাধ্যায়, সহকারী সার্কেল সম্পাদক, বিএসএনএলইইউ, পশ্চিমবঙ্গ সার্কেল ও কম প্রদীপ গুপ্ত সভায় উপস্থিত সদস্যদের সামনে বক্তব্য রাখেন। তারা তাদের বক্তব্যে বলেন যে কেন্দ্রীয় সরকারের রাষ্ট্রায়ত্ত ক্ষেত্র বিরোধী নীতির কারণে বিএসএনএল বর্তমানে আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে। তাই সরকারের উচিত বিএসএনএল এরআর্থিক অবস্থা পুনরুদ্ধার এর লক্ষ্যে সঠিক পদক্ষেপ নেওয়া ও জব কন্ট্রাক্ট লেবারদের বকেয়া বেতন প্রদান এর জন্য প্রয়োজনীয় আর্থিক সাহায্য দেওয়া। 

 
[23rd Jul 2019]

एक्सटेंडेड सीईसी मीटिंग में किसी भी विजिटर को अनुमति नही दी जाएगी.

 

कई सर्कल्स द्वारा, पुणे में 29 से 31 जुलाई 2019 तक आयोजित होने वाली एक्सटेंडेड सीईसी मीटिंग में विज़िटर्स को भी शामिल होने के लिए अनुमति दिए जाने हेतु निवेदन किया जा रहा है। यूनियन के संविधान के अनुसार एक्सटेंडेड सीईसी में शामिल होने की पात्रता केवल सर्किल सेक्रेटरीज, सेंट्रल ऑफिस बेयरर्स और डिस्ट्रिक्ट सेक्रेटरीज को ही है। अतः सर्किल सेक्रेटरीज से एक बार पुनः अनुरोध है कि वें सुनिश्चित करें कि एक्सटेंडेड सीईसी में सर्किल सेक्रेटरीज और सेंट्रल ऑफिस बेयरर्स के अलावा केवल डिस्ट्रिक्ट सेक्रेटरीज ही शामिल हों। यदि किसी डिस्ट्रिक्ट सेक्रेटरी के लिए उपस्थित होना संभव न हों, तो असिस्टेंट डिस्ट्रिक्ट सेक्रेटरी अटेंड करें।

 
[23rd Jul 2019]

मेम्बरशिप वेरिफिकेशन तक ट्रेड यूनियन कार्यवाही पर प्रतिबंध लगाने के कॉर्पोरेट ऑफिस के आदेश पर माननीय मद्रास उच्च न्यायालय का स्थगन.

 

यह एक बड़ी खबर है कि माननीय मद्रास उच्च न्यायालय द्वारा कॉर्पोरेट ऑफिस के पत्र दिनांक 02.07.2019, जिसके तहत 8वें मेम्बरशिप वेरिफिकेशन की प्रक्रिया पूर्ण होने तक प्रदर्शन, धरना आदि पर प्रतिबंध लगाया गया था, पर अंतरिम स्थगन आदेश प्रदान किए गए हैं। कॉर्पोरेट ऑफिस के पत्र दिनांक 02.07.2019 पर स्थगन हेतु कॉम बाबू राधाकृष्णन, सर्किल सेक्रेटरी, तमिलनाडु द्वारा माननीय मद्रास उच्च न्यायालय में पिटीशन दायर की गई थी। उक्त पत्र के माध्यम से धमकी दी गई थी कि किसी भी यूनियन द्वारा धरना, प्रदर्शन आदि किए जाने पर उस यूनियन को 8वें मेम्बरशिप वेरिफिकेशन में शामिल होने पर रोक लगा दी जाएगी। कॉर्पोरेट ऑफिस द्वारा जारी यह पत्र पूर्ण रूप से मनमानीपूर्ण, स्वेच्छाचारी व संविधान में उल्लेखित मूलभूत अधिकारों का उल्लंघन करने वाला था। इसी वजह से BSNLEU ने इस आदेश को न्यायालय में चुनौती देने का निर्णय लिया। SR ब्रांच को इससे सबक लेना चाहिए और ट्रेड यूनियन के मूलभूत अधिकारों को कुचलने की कोशिश नही करनी चाहिए। कॉर्पोरेट मैनेजमेंट में संबंधित अथॉरिटीज को यह सुनिश्चित करना चाहिए कि भविष्य में SR ब्रांच इस तरह की औद्योगिक शांति भंग करने वाली पराक्रमी (?) गतिविधियों से दूर ही रहे। इस जीत पर CHQ की ओरसे तमिलनाडु यूनियन को बधाई।

 
[23rd Jul 2019]

এক্সটেন্ডেড সিইসি মিটিং এ দর্শক হিসেবে কাউকে উপস্থিত থাকার অনুমতি দেওয়া হবে না 

 

কোন কোন সার্কেল থেকে সিএইচকিউ এর কাছে আসন্ন ২৯ থেকে ৩১ জুলাই পুনেতে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া এক্সটেন্ডেড সিইসি মিটিং এ দর্শক হিসেবে উপস্থিত থাকার আবেদন জানানো হচ্ছে । বিএসএনএলইইউ এর সংবিধান অনুযায়ী এক্সটেন্ডেড সিইসি মিটিং এ কেবলমাত্র সেন্ট্রাল অফিস বেয়ারার, সার্কেল সম্পাদক ও জেলা সম্পাদকদের অংশ গ্রহণ করার অনুমোদন আছে। তাই সার্কেল সম্পাদকদের অনুরোধ জানানো হচ্ছে যে এক্সটেন্ডেড সিইসি মিটিং এ সেন্ট্রাল অফিস বেয়ারার ও সার্কেল সম্পাদক ছাড়া কেবলমাত্র জেলা সম্পাদকদের অংশ গ্রহণ সুনিশ্চিত করতে। যদি কোন জেলা সম্পাদক সভায় উপস্থিত না থাকতে পারেন সে ক্ষেত্রে সহকারী জেলা সম্পাদক সভায় উপস্থিত হবেন ।

 
[23rd Jul 2019]

অষ্টম মেম্বারশীপ ভেরিফিকেশন শেষ না হওয়া পর্যন্ত সমস্ত রকম ট্রেড ইউনিয়ন কার্যকলাপ বন্ধ রাখতে কর্পোরেট অফিস এর অর্ডারের উপর মাননীয় মাদ্রাস হাইকোর্টের স্থগিতাদেশ 

 

এটা একটা খুব ভালো খবর যে কর্পোরেট অফিস গত ২ জুলাই, ২০১৯ একটি আদেশ দেন যাতে অষ্টম মেম্বারশীপ ভেরিফিকেশন শেষ না হওয়া পর্যন্ত বিক্ষোভ, ধর্না ইত্যাদি ট্রেড ইউনিয়ন কার্যকলাপ বন্ধ রাখতে হবে কিন্তু মাননীয় মাদ্রাস হাইকোর্ট এর উপর অন্তর্বর্তী কালীন স্থগিতাদেশ জারি করেছেন। কর্পোরেট অফিস এর ২ জুলাই, ২০১৯ জারি করা আদেশের উপর স্থগিতাদেশের জন্য কম বাবু রাধাকৃষ্ণ, সার্কেল সম্পাদক, তামিলনাড়ু মাদ্রাস হাইকোর্টে পিটিশন দাখিল করেন। কর্পোরেট অফিসের ঐ আদেশে ধর্না, বিক্ষোভ ইত্যাদি সংগঠিত করলে সেই ইউনিয়ন কে আসন্ন অষ্টম মেম্বারশীপ ভেরিফিকেশন এ অংশ গ্রহণ করতে দেওয়া হবে না বলে হুমকি দেওয়া হয়। কর্পোরেট অফিস থেকে জারি করা এই আদেশ স্বেচ্ছাচারী, ঔদ্ধত্যপূর্ণ ও সংবিধান প্রদত্ত প্রাথমিক অধিকার গুলো  হরণ করতে চাইছে। এই জন্য বিএসএনএলইইউ হাইকোর্টে এই আদেশের বিরোধিতা করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে। কর্পোরেট অফিসের এস আর শাখার এর থেকে শিক্ষা নিয়ে আগামী দিনে ট্রেড ইউনিয়নের প্রাথমিক অধিকারগুলো হরণ করার চেষ্টা করা উচিত নয়। কর্পোরেট অফিসের কর্তৃপক্ষের উচিত আগামী দিনে এস আর শাখা যাতে উপযাচক হয়ে সংস্থার শান্তিপূর্ণ অবস্থা ক্ষতিগ্রস্ত করার চেষ্টা না করে সে বিষয়ে উপযুক্ত দৃষ্টি রাখা। সিএইচকিউ এর পক্ষ থেকে তামিলনাড়ু সার্কেল কে আন্তরিক অভিনন্দন জানান হচ্ছে। 

 
[20th Jul 2019]

BSNL के वित्तीय उन्नयन (रिवाइवल) के लिए सरकार द्वारा पूंजी लगाना सुनिश्चित करना जरूरी क्यों ?

 

BSNLEU मांग करती है कि सरकार पूंजी लगा कर BSNL का वित्तीय उन्नयन सुनिश्चित करे। मीडिया में इस बात पर बहस हो रही है कि कर दाताओं का पैसा सरकार BSNL और MTNL की मदद करने में क्यों जाया करें। यह एक सच्चाई है कि अपने अस्तित्व के 18.5 वर्षों में BSNL को वित्तीय सहयोग के रूप में कर दाताओं का एक नया पैसा भी प्राप्त नही हुआ है। किन्तु, इसके साथ ही, टाइम्स ऑफ इंडिया ने अपने 17 जुलाई 2019 के अंक में रिपोर्ट प्रस्तुत की है कि वर्ष 2018-19 और 2019-20 में सरकार ने पब्लिक सेक्टर बैंक्स में 2.69 लाख करोड़ की पूंजी डाली थी। यह पूंजी उन पब्लिक सेक्टर बैंक्स को सहयोग करने हेतु डाली गई थी जिन्होंने करोड़ों रुपयों का बैड लोन राइट ऑफ किया था। यहां ध्यान देने योग्य तथ्य यह है कि बैड लोन का बड़ा हिस्सा कॉर्पोरेट्स का था जो उनके द्वारा चुकाया नही गया था। कैपिटल इंफ्यूजन के माध्यम से सरकार द्वारा पब्लिक सेक्टर बैंक्स को मदद इसलिए दी गई थी कि वें पुनः बड़े कॉर्पोरेट्स को नए सिरे से लोन दे सके। अतः, जब सरकार पब्लिक सेक्टर बैंक्स में रु 2.69 लाख करोड़ की पूंजी डाल सकती है और वह भी 2 वर्षों की अवधि में, तो फिर BSNL के आर्थिक उन्नयन के लिए BSNL में पूंजी क्यों नही लगाई जा सकती है? हमारी मांग ज्यादा वाजिब इसलिए भी है कि केवल सरकार द्वारा उठाए गए एन्टी BSNL कदमों की वजह से ही BSNL की दुर्दशा हुई है।

 
You are Visitor Number Hit Counter
Hit Counter
[CHQ] [AP] [Kerala] [Karnataka] [Tamil Nadu] [Calcutta] [West Bengal] [Punjab] [Maharashtra] [Orissa] [MP] [Gujrat] [SNEA] [AIBSNLEA] [TEPU]
[Intranet / BSNL] [DOT] [DPE] [TRAI] [PIB] [CITU ] / AIBDPA